শুক্রবার, ২২ মার্চ, ২০২৪

Five new players join Inter Miami / new players list of inter miami / foodball update news

 

 

Argentina's foodbal king Lionel Messi joins Inter Miami after saying goodbye to Europe.

American football has changed with the arrival of Messi.

Inter Miami haswon Messi with reputation.

Along with Messi, footballers are joining Inter Miami one after another.

Now the names of five more stars have been added to that list.

 

First on the list is the name of Ramus.

 

 Ramus expressed his desire to play with Messi.

 

Messi is our role model, I feel blessed to play with him in his team.

Maria is number two on the list.

 

 World champion Maria could join Inter Miami at the end of the season.

 

Maria said there have been talks with Inter Miami.

 

Willing to go to Miami if the deal goes through.

 

 

Messi's former friend Neymar is number three in the list.

 

Messi says he has regular contact with Neymar.

 

 Neymar has expressed his desire to play with me next season.

Messi also said, Neymar is my good friend.

 

We stay together and have a good communication.

 

 Now I expressed my wish that Neymar can play with me if he wants.

 

Neymar's contract with Al Hilal has been terminated due to a foot injury, so Neymar is now looking for a new club.

 

Mudris is fourth in the list,

 

Madrid says everyone wants to stay away from me, even Messi.

 

Mudris says,

 If the conditions are right, I want to end my football career with Messi.

Anmerni Nesta is fifth in the list.

 

Anmarin played together with Resta Messi at Barcelona.

Inter Miami also made a brief announcement about Anmarinresta.

 

Dear foot ball lovers, if indeed these five stars join Inter Miami,

 

Have you thought about what is going to happen next season?

Comment your valuable opinion.

United States club Inter Miami has confirmed that Anmarinresta will play for Inter Miami.



মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ, ২০২৪

[ NTRCA ] শিক্ষক নিবন্ধনের লিখিত পরীক্ষার চূড়ান্ত প্রস্তুতি ( স্কুল পর্যা-২ এর নিয়োগ প্রস্ততি )

  শিক্ষক নিবন্ধনের লিখিত পরীক্ষার চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিয়ে আজকে আমরা চূড়ান্ত ভাবে কথা বলব।

এখানে বিশেষ কিছু তথ্য উপস্থাপন করার চেষ্টা করবো, বিষয় গুলো খেয়াল করে পড়াশোনা করলে আশা করি ভালো একটা ফিডব্যাক পাবেন তো চলুন শুরু করা যাক।


নিবন্ধন পরীক্ষা নিয়ে ব্যাসিক প্রশ্নের উত্তরঃ

এবার নিবন্ধনের লিখিত পরীক্ষার সিলেবাসের পরিবর্তন হয়েছে যার কারণে একটা প্রশ্নে অনেক গুলো সাবজেক্টএর  পরীক্ষা হবে। আর আপনার আবেদনকৃত কপির সাথে আপনার বিষয় কোড মিলিয়ে পরে প্রস্তুতিনিন নয়ত সব বিফলে যাবে।


আমরা নিবন্ধন পরীক্ষার একটা প্রশ্ন ও উদাহরণ নিয়ে বলি হয়ত টের পাবেনঃ

ক্রমিক ৫- এর সহকারী শিকক্ষক পদে নিয়োগের লিখিত পরীক্ষা একটা প্রশ্ন পত্রে অনুষ্ঠিত হবে,

সামাজিক বিজ্ঞান পদে সাতটি বিষয়ের প্রশ্নপত্র এক প্রশ্নে পরীকাক্ষা নেওয়া হবে।

অর্থনীতি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান, ইতিহাস, সংস্বৃতি, সমাজবিজ্ঞান, সমাজকল্যাণ , সমাজকর্ম, ভূগোল , পরিবেশবিজ্ঞান এই সকল সাবজেক্ট এর পরীক্ষা এক প্রশ্নে করা হবে।


আমরা এখন স্কুল পর্যায়-২ এর লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে কথা বলবঃ

এখানে মোট নাম্বার থাকবে ১০০

পরীক্ষার্থীরা সময় পাবে ৩ ঘন্টা

এখানে বিগত সালের প্রশ্ন দেখলে বুঝবেন কোন কোন অধ্যায় থেকে প্রশ্ন করা হয়েছে সেই অধ্যায় গুলো বার বার রিভিশন দিতে হবে এবং ভালো করার জন্য দ্রুত হাতের লেখার অভ্যাস থাকতে হবে কারণ নাম্বার কম কিন্তু প্রচুর লিখতে হয়।


ট্যাগঃ

নিবন্ধন পরীক্ষার প্রস্ততি,

লিখিত পরীক্ষার প্রস্তুতি,

লিখিত পরীক্ষার সাজেশন,

লিখিত পরীক্ষার জন্য কি ভাবে প্রস্তুতি নবেন।




বুধবার, ১৩ মার্চ, ২০২৪

[পাশ করার কৌশল] বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষার প্রস্তুতি / NTRCA চাকরি পরীক্ষার পাশ করার কৌশল

 বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় ভালো করার কৌশল নিয়ে আজকে আমরা আলোচনা করবো।

প্রথমেই মাথায় রাখবো এই লেখাটা যাস্ট প্রিলি পারকরার জন্য, অর্থাত  শুধুমাত্র, NTRCA নিয়োগ  পরীক্ষা/ বাছাই পরীক্ষায় পাশ করার জন্য। এটা লিখিত পরীক্ষায় পাশ করার জন্য নয়।


নিবন্ধন পরীক্ষার প্রিলি পাশ করার সহজ উপায়ঃ

এখানে আমরা যাস্ট অল্প কিছু স্টেপ বর্ণনা করব, এই বিষয় গুলো মাথায় রেখে আপনি পরীক্ষা দিলে আশা করা যায় আপনি ভালো কিছু করতে পারবেন,তো চলুন শুরু করা যাক।

প্রথমেই বলছি নিবন্ধনের প্রিলি পাশ করার জন্য কোনো প্রতিযোগীতা নেই এখানে  তাই প্রস্তুতি যেমনি থাকুক আপনাকে মাথায় রাখতে হবে যে পাশ নাম্বার ৪০।

১) পাশ করার জন্য সঠিক গুলো আগে ফিলাপ করবেন অর্থাত আপনার জানা মতে যে গুলো আপনার কাছে সহজ মনে হয় সেগুলো আগে ফিলাপ করেন।

২) কমন গুলো আগে দাগিয়ে দেখুন  আপনার কয়টা হয়েছে।

৩) ভূল দাগানোর আগে মাথায় রাখুন কয়টা সঠিক করেছেন।

৪) কনফ্রাম গুলো দাগানোর পরে গুনে দেখন ৪৫/৪৬ থাকে কিনা।

৫) আপনার জনা মতে কনফ্রাম ৪৫/৫০ হলে কলম স্টপ করে দিন।


আমাদের সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ

সোমবার, ১১ মার্চ, ২০২৪

প্রাথমিকের সহকারী শিক্ষক পদে প্রতিবন্ধী কোটায় ১১৭ জনকে নিয়োগ দিয়ে রুল। প্রতিবন্ধী কোটার আপডেট খবর

 সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষা-২০১৮ ও ২০২০ এ চলমান নিয়োগ প্রক্রিয়া এবং বিধিমালা অনুযায়ী ১০ শতাংশ প্রতিবন্ধী কোটা পূরণ করে প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের নিয়োগ না দেওয়া কেন অবৈধ হবে না ও ১০ শতাংশ প্রতিবন্ধী কোটা পূরণ করে রিটকারী প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগের নির্দেশনা কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট।

একইসঙ্গে রিটকারীদের তাদের স্ব স্ব জেলায় ১১৭টি সহকারী শিক্ষকের পদ সংরক্ষণের নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোট।

 সোমবার (১১ মার্চ) দেশের বিভিন্ন জেলার ১১৭ জন প্রার্থীর দায়ের করা দুটি রিটের প্রাথমিক শুনানি শেষে বিচারপতি নাইমা হায়দার এবং বিচারপতি কাজী জিনাত হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন  এবং সভা অনুষ্ঠতি হয়।



“কিন্তু উক্ত নিয়োগ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশিত হলে দেখা যায় সেখানে কোনো প্রতিবন্ধী প্রার্থীকে সুযোগ প্রদান করা হয়নি। অথচ, সংস্থাপন মন্ত্রণালয় (বর্তমান জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়) কর্তৃক জারিকৃত ১৭/০৩/১৯৯৭ খ্রি. তারিখের পরিপত্র অনুযায়ী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণির সহকারী শিক্ষক পদে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে ১০% পদ প্রতিবন্ধী প্রার্থীদের দ্বারা পূরণ করার বিধান রয়েছে এবং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় শিক্ষক নিয়োগ বিধিমালা ২০১৯ এর ৮ এর ২ বিধিতে বলা হয়েছে ‌‘উপ-বিধি (২) এর দফা (গ) তে উল্লেখিত নারী, পোষ্য ও পুরুষ কোটা পূরণের ক্ষেত্রে, আপাতত বলবৎ অন্য কোনো বিধি বা সরকারি সিদ্ধান্তে কোনো বিশেষ শ্রেণির কোটা নির্ধারিত থাকলে উক্ত কোটা সংক্রান্ত বিধান অনুযায়ী নিয়োগ করিতে হইবে’


 এবং প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন, ২০১৩ এর ধারা ৩৫ এর ১ এ বলা হয়েছে ‘আপাতত বলবৎ অন্য কোনো আইনে যাহা কিছুই থাকুক না কেন, যোগ্যতা থাক সত্ত্বেও, প্রতিবন্ধিতার ধরন অনুযায়ী, উপযোগী কোনো কর্মে নিযুক্ত হতে কোনো প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে বঞ্চিত বা তাহার প্রতি বৈষম্য করা বা তাহাকে বাধাগ্রস্ত করা যাইবে না’ এবং আমাদের দেশের সংবিধান এর অনুচ্ছেদ ২৮ এর ৪ এ উল্লেখ্য আছে যে ‘নাথিং ইন দিস আর্টিকেল শ্যাল প্রিভেন্ট দ্যা স্টেট ফ্রম মেকিং স্পেশাল প্রিভিশন ইন ফেভার অফ ওমেন অর চিলড্রেন অর ফর দ্যা অ্যাডভান্সমেন্ট অফ অ্যানি ব্যাকওয়ার্ড সেকশন অফ সিটিজেনস’, কিন্তু বিধি মোতাবেক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পাওয়ার বৈধ অধিকারী হওয়া সত্ত্বেও উপরিউক্ত সকল আইনকানুন অবজ্ঞা করে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষা-২০১৮ এবং ২০২০ চূড়ান্ত ফলাফলে কোনো প্রতিবন্ধী প্রার্থীকে সুযোগ প্রদান না করায় পিটিশনারদের মৌলিক অধিকারের লঙ্ঘন হওয়ায় রিট দায়ের করা হয়।”

রিটকারীদের আইনজীবী মোহাম্মদ ছিদ্দিক উল্লাহ আমাদের যে তথ্য দিয়েছেন। মেধাবী শারীরিক প্রতিবন্ধী, দৃষ্টি প্রতিবন্ধী, শ্রবণ প্রতিবন্ধী এবং বাক প্রতিবন্ধী ব্যক্তি। ১১৭ জনের মধ্যে প্রায় অনেকেই দেশের সবচেয়ে স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ থেকে স্নাতক সম্পন্ন করেছেন। তাদের অনেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনা করছেন। তারা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর কর্তৃক সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষা-২০১৮ এবং ২০২০ এর প্রকাশিত নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী প্রতিবন্ধী কোটায় নিয়োগের জন্য আবেদন করেন। পরে লিখিত পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে সফলভাবে উত্তীর্ণ হন এবং মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেন।

রিটে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সচিব ও প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবং পরিচালক (পলিসি এন্ড অপারেশন)-কে বিবাদী করে এ সুনানী দওয়া হয়।

রিটকারীগণ হলেন (বিভিন্ন জেলার) প্রথম রিটের (১) মো. দুলাল হোসেন, (২) মো. আনিচুর রহমান, (৩) মো. রাফাত আল ফয়সাল, (৪) মেসবাহ উদ্দিন এবং (৫) নাসির উদ্দিন এবং দ্বিতীয় রিটের (১) মো. শামীম রেজা, (২) মো. মনজুরুল ইসলাম, (৩) মো. ইদ্রিস আলী, (৪) মো. আইউব আলী এবং (৫) বেলাল হোসেনসহ সর্বমোট ১১৭ জন।

আমাদের সকল বার্তা পাওয়ার জন্য আমাদের সাথে থাকুন।


ট্যাগ


শনিবার, ৯ মার্চ, ২০২৪

বাংলাদেশের জাতীয় সংগীত

 আমার সোনার বাংলা আমি তোমায় ভালোবাসি চিরদিন তেমার আকাশ তোমার বাতাস আমার প্রাণে বাজায় বাঁশি।

এটা আমাদের  কবি গুরু রবীন্দ্রনাথ লিখেছেন।

কবি গুরু রবিন্দ্রথাথ মোট তিনটা দেশের জাতীয় সংগীত রচনা করেন তার মধ্যে বাংলাদেশ, ভারত ও  শ্রীলংকা প্রধান ।

আমরা আমাদের দেশের কবির প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা গ্যাপন করি ।

গুরুত্বপূর্ণ পোস্ট দেখুন

রেলওয়ে রেলভবন

নং-৫৪.০১.২৬০০,০০৮.১১,০১৬,২৩-০৫ গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার মহাপরিচালকের কার্যালয় পরিবহণ ও বাণিজ্যিক বিভাগ বাংলাদেশ রেলওয়ে রেলভবন, ঢাকা। (w...

বেশি সার্চ করা পোস্ট গুলো